২৫ মে ২০২৪

আনোয়ারায় মুখোমুখি দুই প্রার্থীর সমর্থকরা, মিছিলে নিষেধাজ্ঞা

আসন্ন ২৯ মে আনোয়ারায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রতীক পাওয়ার পরপরই দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে একই স্থানে মিছিল নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে উভয় পক্ষের মিছিলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে প্রশাসন।

সোমবার (১৩ মে) বিকালে উপজেলার চাতরী চৌমহনী বাজার এলাকা প্রান্তের সড়কে এ উত্তেজনা ও পাল্টাপাল্টি মিছিলের আয়োজন করেন।

সোমবার দুপুরে প্রতীক বরাদ্দ পেয়ে মোটরসাইকেল প্রতীক চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক এম এ মান্নান চৌধুরী ও আনারস প্রতীকে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি কাজী মোজাম্মেল হকের সমর্থকেরা চাতরী চৌমহনী বাজারে টানেল সংযোগ সড়কে নির্বাচনি মিছিলের ঘোষণা দেন।

এতে বিকাল থেকেই দুই পক্ষের প্রায় দুই হাজার সমর্থক উপস্থিত হলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ মাজহারুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উভয় পক্ষের মিছিলে নিষেধাজ্ঞা জারি করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। পরে দু’পক্ষের সমর্থকরা স্লোগান ছাড়া দলবদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যাপক এম এ মান্নান চৌধুরী বলেন, ‘আজ (সোমবার) আমার কোন কর্মসূচি ছিল না, প্রতীক বরাদ্দের পর জনগণ নিজেরাই আনন্দিত হয়ে জমায়েত হলে পুলিশ বাধা দেন। এতে আমার সমর্থকরা মিছিল না করে ফিরে আসে।’

অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজী মোজাম্মেল হকের নির্বাচনী দায়িত্বে নিয়োজিত থাকা আবুল বশর বলেন, ‘প্রতীক পাওয়ার পর আমাদের কর্মী সমর্থকরা নির্বাচনী অফিসের সামনে একত্রিত হয়ে মিছিল করতে চাইলে পুলিশ নিষেধ করেন। আমাদেরও কোন কর্মসূচি ছিল না।’

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সোহেল আহমদ বলেন, দুই প্রার্থীর সমর্থকেরা একই স্থানে মিছিল করতে চাইলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ ও নির্বাচনে দায়িত্ব প্রাপ্ত এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত হয়ে কোন পক্ষকে মিছিল করতে নিষেধ করেন। এতে পরিস্থিত শান্ত হয়।

এদিকে প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পরপরই উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নির্বাচনি প্রচারে নেমে পড়েছেন প্রার্থীরা। চেয়ারম্যান প্রার্থী তৌহিদুল হক চৌধুরী উপজেলার বরুমচড়া ও বারখাইন ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায়, কাজী মোজাম্মেল হক চাতরী চৌমহনী বাজার, বৈরাগ ও বারশত ইউনিয়নে এবং অধ্যাপক এম এ মান্নান চৌধুরী, চাতরী চৌমহনী বাজার, বটতলী ও বারশত ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণা করেন। এসময় প্রার্থীরা নির্বাচিত হলে মানুষের পাশে থাকাসহ বিভিন্ন উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেন।

এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে পাঁচজন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজন প্রার্থীরা প্রতীক পেয়ে মানুষের কাছে গিয়ে দোয়া ও ভোট চান।

আরও পড়ুন