২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

আবারও সবার উপরে সাকিব

বাংলাধারা প্রতিবেদন »

ডেভিড ওয়ার্নার ও সাকিব আল হাসানের লড়াইটা বেশ ভালোই জমেছে। একবার বাংলাদেশি অলরাউন্ডার শীর্ষে উঠছেন তো, আবার তাঁকে টপকে যাচ্ছেন অস্ট্রেলীয় ওপেনার। নিজেদের সপ্তম ম্যাচে দারুণ হাফ সেঞ্চুরি করে বিশ্বকাপে রান সংগ্রহের ক্ষেত্রে আবার সবার ওপরে উঠে গেছেন সাকিব।

শুধু তাই নয় দারুণ একটি কীর্তিও গড়েছেন, বিশ্বকাপে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে এক হাজার রান করেছেন তিনি। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে সাকিব ৫১ রান করে শীর্ষে উঠে গেছেন। বিশ্বকাপে এখন তাঁর মোট সংগ্রহ ৪৭৫ রান। সাত ম্যাচে তিনটি হাফঞ্চেুরি ও দুটি সেঞ্চুরিতে এই রান করেন তিনি। আর ওয়ার্নার ছয় ম্যাচে ৪৪৭ রান করে দ্বিতীয় স্থানে আছেন। আর তৃতীয় স্থানে থাকা জো রুটের সংগ্রহ ৪২৪ রান।

চলমান বিশ্বকাপে দারুণ উজ্জ্বল সাকিবের ব্যাট। এখন পর্যন্ত সবকটি ম্যাচেই দারুণ সাফল্য পেয়েছেন তিনি। আজ সোমবার আফগানিস্তানের বিপক্ষেও সে ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন। আর বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ২৭ ম্যাচ খেলে ১০১৬ রান করেন তিনি। এদিকে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সাকিব ওয়ানডেতে ছয় হাজার রানের মাইলফলক গড়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচে। বাংলাদেশের জার্সি গায়ে এখন পর্যন্ত ২০৪ ম্যাচে নয়টি সেঞ্চুরি ও ৪৬টি হাফসেঞ্চুরিতে ৬১৯৩ রান করেন তিনি।

সাকিবের আগে বাংলাদেশের হয়ে ছয় হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। তিনি ১১টি সেঞ্চুরি ও ৪৭টি হাফসেঞ্চুরিতে ছয় হাজার ৮৪১ রান করেন। এবারের বিশ্বকাপেই ওয়ানডে ফরম্যাটে নিজের ২৫০তম উইকেট শিকার করেন সাকিব। তাই ওয়ানডে ক্রিকেটে দ্রুত ছয় হাজার রান করার পাশাপাশি ২৫০ উইকেট নেওয়ার বিশ্বরেকর্ড করেন এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। চলমান বিশ্বকাপে সাকিবের ঝুলিতে জমা পড়েছে আরো কয়েকটি রেকর্ড। ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ২০০তম ম্যাচ খেলেন এই বিশ্বকাপেই।

এর আগে বাংলাদেশের পক্ষে দুজন ২০০ বা তার চেয়ে বেশি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন। মাশরাফি বিন মুর্তজা ও মুশফিকুর রহিম। মাশরাফি ২১৩ এবং মুশফিকুর রহিম ২১১তম ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নেমেছেন আজ। এ ছাড়া তামিম ইকবাল ১৯৯ ও মাহমুদউল্লাহ ১৮১টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন বাংলাদেশ দলের হয়ে। আর সাকিব খেলছেন ২০৪ ম্যাচ।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর/টিএম/বি

আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও

সর্বশেষ