২০ মে ২০২৪

কর্ণফুলীতে প্রতিপক্ষের কোপে আহত বাবা-ছেলে; আসামিদের ধরছে না পুলিশ!

কার্নিভাল

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী থানার বৈরাগ ইউনিয়নে কথা কাটাকাটির জেরে হিন্দুপাড়া এলাকায় বাবা-ছেলেকে কুপিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় মামলা করা হলেও আসামিদের ধরছে না পুলিশ— এমন অভিযোগ উঠেছে এবার কর্ণফুলী থানার পুলিশের বিরুদ্ধে। এনিয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশও করেছে বিক্ষুব্ধ সনাতনী সমাজ।

শুক্রবার (৩ মে) চট্টগ্রামে কর্ণফুলী থানার বৈরাগ ইউনিয়নের দক্ষিণ বন্দর (৩ নম্বর ওয়ার্ড) মহালখান এলাকার হিন্দুপাড়ায় মারামারির এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে রতন গুপ্ত ও তার ছেলে হিমেল গুপ্ত এখনো হাসপাতালে কাতরাচ্ছে। আহত পিতাপুত্রের মাথায় ১৮টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে চট্টগ্রাম মেডিকেল সূত্রে নিশ্চিত করেছে।

মারধর ও হামলার ঘটনায় আহত রতন গুপ্তের আরেক ছেলে রুবেল গুপ্ত বাদি হয়ে চারজনকে আসামি করে কর্ণফুলী থানায় মামলা করেন।

মামলায় আসামিরা হলেন— কর্ণফুলীর দক্ষিণ বন্দর শাহাদাত নগর এলাকার (৩ নম্বর ওয়ার্ড) শাহাদাত হোসেনের ছেলে মো. ইব্রাহিম (৫৫), মো. ইব্রাহিমের ছেলে ফরহাদ হোসেন (৩৩) ও রাহাত হোসেন (৩১) ও একই এলাকার মামুন হোসেন চৌধুরী’র ছেলে রিয়াদ হোসেন চৌধুরী (২৩)। এছাড়াও অজ্ঞাতনামা আরও ৪-৫ জনকে আসামি করা হয়।

এদিকে এ বর্বর হামলার ঘটনায় হামলাকারীরা প্রকাশ্যে ঘুরলেও অভিযোগ উঠেছে, মামলার আসামিদের ধরছে না কর্ণফুলী থানা পুলিশ। বরং মামলা তুলে নিতে দিনরাত হুমকির মুখে আতঙ্কে নির্ঘুম দিনরাত কাটাচ্ছে নির্যাতিত পরিবারগুলো।

এদিকে ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতাদের দাবিতে চট্টগ্রামে সিইএফএল সড়কে কাপকো সেন্টারের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে সনাতনী সমাজ।

শনিবার বিকালে আয়োজিত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জগদীশ সিংহ। সনাতন সমাজের নেতা পবন কুমার গুপ্তের সঞ্চালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রামের গোলপাহাড় মহাশ্মশান কালীমন্দির পরিচালনা পরিষদের সভাপতি দোদুল কুমার দত্ত সিআইপি।

বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কল্লোল সেন, সনাতনী সমাজ জনকল্যাণ পরিষদের সহ সভাপতি আদিনাথ সিংহ, ইউপি সদস্য রূপন বসু, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক অমিতাভ চৌধুরী বাবু, আনোয়ারা উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এম এ মন্নান মান্না, নরেশ সরকার, শীতল ভৌমিক, জুয়েল সিংহ, সুপেন সিংহ, ১ নম্বর বৈরাগ ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুভাস সিংহ, সাধারণ সম্পাদক রনি সিংহ, রবি সিংহ, রুপেন সেন, চিন্তা হরণ দাশ।

সমাবেশে চট্টগ্রামের গোলপাহাড় মহাশ্মশান কালীমন্দির পরিচালনা পরিষদের সভাপতি দোদুল কুমার দত্ত সিআইপি হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে বিচারের দাবি জানান।

এ সময় সনাতনী সমাজের নেতারা ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই মামলার আসামি সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার না করলে কঠোর কর্মসূচিরও হুঁশিয়ারি দেন।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে কর্ণফুলী থানার হিন্দুপাড়া, দাশ পাড়া, সিংহ পাড়াসহ সনাতনী সমাজের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও

সর্বশেষ