১৫ জুলাই ২০২৪

কালুরঘাট ফেরিতে হঠাৎ ভাড়া আদায়, জনমনে ক্ষোভ

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর কালুরঘাট ফেরিতে মানুষ পারাপারে জনপ্রতি ৫ টাকা করে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে পারাপারকারীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার (২৯ জুন) সকাল থেকে এ টাকা আদায় করা হচ্ছে বলে জানান ফেরিতে পারাপাররত অনেক ভুক্তভোগিরা।

ভুক্তভোগিরা বলেন, আগে ফেরি করে মানুষ বিনামূল্যে যাতায়াত করত। এখন ৫ টাকা করে জনপ্রতি নিচ্ছে। অনেকে আছে চাকরিজীবী, শিক্ষার্থী, যারা প্রতিনিয়ত পারাপার করে। তারা দৈনিক ১০ টাকা দিয়ে কিভাবে পার হবে? ফেরি দিয়ে হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। শুরু থেকে এ নিয়ম ছিল না; নৌকা বন্ধ হওয়ার পর কেন চালু হল— ফেরি কর্তৃপক্ষের প্রতি ভুক্তভোগিদের প্রশ্ন।

পৌর মেয়র মো. জহুরুল ইসলাম জহুর বলেন, ‘বিষয়টি আমি শুনেছি। এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপদ বিভাগের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছি, তারা বলেছেন ফেরি পারাপারে যাত্রীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার কোন নিয়ম নেই। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে।’

মো. হোসেন নামে ভুক্তভোগী বলেন, ‘আগে এমন নিয়ম চালু ছিল না। নৌকা না চলাতে তারা ৫ টাকা করে জনপ্রতি নিচ্ছে। এ থেকে বুঝা যায় তারা নৌকা থেকে চাঁদা নিতো। কাজলের মৃত্যুর নৌকা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় নৌকা থেকে সে চাঁদা না পেয়ে এখন সেটি মানুষের ঘাড়ে এসে পড়েছে।’

এ বিষয়ে জানতে ফেরির ইজারাদারদের সাথে মুঠোফোনে বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তারা কল রিসিভ না করায় যোগযোগ সম্ভব হয়নি।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের চট্টগ্রাম অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী মোছলেহ বলেন, ‘মানুষ থেকে টাকা নেয়ার কোন নিয়ম নেই। এ বিষয়ে আমাকে কেউ জানায়নি। বিষয়টি তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরও পড়ুন