২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বাকলিয়ায় গৃহবধূকে গুলি করে হত্যা : বন্দুকযুদ্ধে অভিযুক্ত নিহত

বাংলাধারা প্রতিবেদন »

নগরীর বাকলিয়া থানাধীন বজ্রঘোনা বলিরহাট এলাকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে বুবলী আক্তার (২৭) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শাহ আলম পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

শনিবার (১১ মে) দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। বাকলিয়া থানাধীন কর্ণফুলী নদীর কাছে শাহ আলমকে ধরতে পুলিশ অভিযানে যায়। তখন পুলিশের সঙ্গে শাহ আলম ও তার সহযোগিদের বন্দুকযুদ্ধ হয়। নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) এসএস মেহেদী হাসান বলেন, শাহ আলমকে গ্রেফতারে অভিযানে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে শাহ আলম ও তার সহযোগীরা। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। পরে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় শাহ আলমকে পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় ওসি নেজাম উদ্দিনসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হন। বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নেজাম উদ্দিন জানান, গৃহবধূ বুবলি খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান আসামি পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে আহত হয়। পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া পিস্তলটি দিয়ে বুবলি আক্তারকে গুলি করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মৃত বুবলী আক্তারের বাবার বাড়ি বাকলিয়ার বজ্রঘোনা এলাকায়। তার স্বামীর নাম আকরাম হোসেন। বজ্রঘোনা এলাকায় বাবার বাড়িতে বেড়াতে এসে বুবলী হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন।

হাছান নামের এক যুবককে মারতে যান তার প্রতিপক্ষ শাহ আলম। হাছানের বন্ধু রুবেলকে পেয়ে তাকে মারতে উদ্যত হন শাহ আলম। তখন রুবেলকে বাঁচাতে গিয়ে মাথায় গুলিবিদ্ধ হন তার বোন বুবলী আক্তার। এরপর বুবলীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর/এসবি

আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও

সর্বশেষ