২৩ মে ২০২৪

চট্টগ্রামে ভারী বৃষ্টিতে জলজট, বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে পড়লো সড়কে

চট্টগ্রামে

গত সপ্তাহ কয়েক ধরে তীব্র গরমের পর এবার কালবৈশাখীর তাণ্ডব শুরু হয়েছে চট্টগ্রামে। আজ সোমবার দিনের শুরুতে রোদ-মেঘের খেলা থাকলেও চট্টগ্রামে আকাশে শুরু হয় মেঘের আনাগোনা, যেন কালো চাদরে ঢেকে গেল শহর, নেমে এল আঁধার। এরপর শুরু হয় বৃষ্টি। ঘন কালো মেঘে ঢেকে যাওয়া ধরায় মুষলধারে বৃষ্টির সঙ্গে সঙ্গে হঠাৎ আলোকিত করে বজ্রপাত, শব্দে চমকে উঠছে নগরবাসী।

সড়কে ভেঙে পড়লো বৈদ্যুতিক খুঁটি ও ট্রান্সফরমার
এদিকে চট্টগ্রামে নগরে হঠাৎ ভারী বৃষ্টিতে জাকির হোসেন রোডে বৈদ্যুতিক খুঁটি, ট্রান্সফরমার ও গাছপালা ভেঙে পড়েছে। এতে এম ই এস কলেজ মোড় থেকে জিইসি মোড়ের যানচলাচলে কিছুটা বিঘ্ন ঘটছে। বৈদ্যুতিক খুঁটি ও গাছপালা সরাতে একযোগে কাজ করছে বিদ্যুৎ বিভাগ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

খুলশী বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের প্রধান কর্মকর্তা নুর উদ্দিন সিভয়েস২৪-কে বলেন, ভারী বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া কারণে দুইটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে সংযুক্ত ট্রান্সফরমার রাস্তায় ভেঙে পড়েছে। সংযোগ বন্ধ থাকায় কোন ধরনের দুর্ঘটনা ঘটেনি। ঘটনাস্থলে বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন কাজ করছে।

তবে বৃষ্টি শুরু হওয়ার পর থেকেই বিদ্যুৎ নেই চট্টগ্রামের অধিকাংশ এলাকায়। নগরীর লালখান বাজার, ওয়াসা মোড়, চকবাজার, এনায়েতবাজার, লাভলেনসহ বিভিন্ন এলাকায়ও ২ ঘণ্টা ধরে বিদ্যুৎ নেই।

জলজট ও জনদুর্ভোগ
চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন এলাকায় হঠাৎ করে শুরু হয় ভারী বৃষ্টি। যার ফলে তৈরি হয়েছে জলজট। কর্মব্যস্ত দিন শেষে এমন বৃষ্টিতে নগরবাসী স্বস্তি পেলেও বিপাকে পড়েছেন পথচারী ও কর্মজীবী মানুষেরা। অনেকেই ঘণ্টাব্যাপী রাস্তার পাশে অপেক্ষা করছেন বৃষ্টি থামার।

জানা গেছে, নগরীর জিইসি, ২ নম্বর গেট, মুরাদপুর, বহদ্দারহাট, চকবাজার, নতুন ব্রিজ, পাঁচলাইশ, ইপিজেড, বারিক বিল্ডিং আগ্রাবাদ, চৌমুহনী, দেওয়ানহাট, আগ্রাবাদ এলাকার বিভিন্ন স্থানে ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে সড়কে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।

এর আগে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, সোমবার (৬ মে) চট্টগ্রামসহ সারাদেশে কাল বৈশাখী ঝড়ের সম্ভাবনা রয়েছে। বিশেষ করে পশ্চিমাঞ্চলের খুলনা, রাজশাহী বিভাগ ছাড়াও সারা দেশে কাল বৈশাখী ঝড় বৃষ্টি এবং কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আবহাওয়া পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রি হ্রাস পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। অন্যদিকে ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অধিকাংশ জায়গা থেকে প্রশমিত হতে পারে।

সোমবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের দুএক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে।

চট্টগ্রামের পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ মেঘনাথ তঞ্চগ্যা বলেন, সোমবার দুপুর ৩টা থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ৩২ মিলিমিটার। আমাদের দপ্তর থেকে ৩ ঘণ্টা পরপর আপডেট দেওয়া হয়। সেক্ষেত্রে সন্ধ্যা ৬টার পর পুনরায় আপডেট জানানো হবে।

আরও পড়ুন