২০ মে ২০২৪

জনপ্রশাসন পদক পেল হাটহাজারী ইউএনও কার্যালয়

হাটহাজারী প্রতিনিধি »

চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কের হাটহাজারী উপজেলার পশ্চিমে ফরহাদাবাদ ইউনিয়ন। সে ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের এক নিভৃত পল্লীর নাম ‘মনাই ত্রিপুরা’। প্রায় ১৮ কিলোমিটার দূরে ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর ৫৫ পরিবারের বসবাস এই পল্লী। যোগাযোগ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও স্যানিটেশনসহ বিভিন্ন সরকারী সুযোগ সুবিধা থেকে বঞিত ছিল এ জনগোষ্ঠী। ২০১৮ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর হাটহাজারি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিন যোগদান করার পর এই অবহেলিত এই পল্লীর কথা জানতে পারেন। তিনি সরাসরি এ পল্লী পরিদর্শন করেন এবং এই পল্লীর বার্তা প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়ার আশ্বাস দেন।

কিছুদিনের মধ্যেই সে আশ্বাসের সুফল পেয়ে থাকে। এই সরকারি কর্মকর্তা দুর্গম এ পল্লীকে নিয়ে আলোর পথে যাত্রা শুরু করেন।দীর্ঘ আড়াই বছর অনেক পরিশ্রম করে দূর্ঘম পাহাড়ী এ জনপথকে একটি মডেলে রুপান্তরিত করেন। যেখানে যোগাযোগ, শিক্ষা, বিদ্যুৎ, স্বাস্থ্য ও স্যানিটেশনসহ বিভিন্ন উন্নয়ন মুলক কাজ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন দর্শন ‘আমার গ্রাম, আমার শহর’ শ্লোগানে রচিত হয় দৃষ্টির আড়ালে থাকা এই পল্লীটি। ফলে দীর্ঘ দিন পরে মনাই ত্রিপুরা পাড়ার গায়ে লেগে থাকা দুর্গম পাহাড়ি শব্দটি দূর হয়। সেই দীর্ঘ আড়াই বছরের পরিশ্রমের স্বীকৃত পেল জনপ্রশাসন পদক ২১ হাটহাজারী উপজেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সকালে এই পদক গ্রহণ করেন বর্তমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাহিদুল আলম। পাশাপাশি এই সম্মান অর্জনের পেছনে যার অবদান সবচেয়ে বেশী তিনি সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ রুহুল আমিন। যার পরিশ্রমে স্বীকৃতি পেল এই জনপ্রশাসন পদক ২০২১

বাংলাধারা/এফএস/এআর

আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও

সর্বশেষ