১৩ এপ্রিল ২০২৪

পিএইচপি ইসলামিক জ্ঞানের প্রতিযোগিতায় সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান

জ্ঞানার্জনের পিপাসা মানুষের মধ্যে থাকা দরকার

জ্ঞান অর্জনের পিপাসা মানুষের মাধ্যে থাকা দরকার। ১২শ সাল পর্যন্ত পৃথিবীর ইতিহাসে সমস্ত বিজ্ঞান, অর্থনীতি, সাহিত্যের ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠত্বে অধিকারী ছিলেন মুসলমানরা। এর পর থেকে জ্ঞান-বিজ্ঞানে অনীহার কারণ আজ আমরা বিপদগ্রস্ত। আমার আর অবহেলা করলে চলবে না, শ্রেষ্ঠত্বকে আবার ধারণ করতে হবে। আমাদের স্বপ্ন- নজীবীর (স.) জীবনাচারকে আমাদের জীবনের সামনে রেখে কাজ-কর্ম, চিন্ত-চেতনা সমস্ত কিছু সেভাবে ধারণ ও লালন করে পৃথিবীকে আমরা স্বর্গ হিসেবে গড়ে তুলবো।

শনিবার (২৩ মার্চ) শিল্পকলা একাডেমি চট্টগ্রামে প্রাইম ভিশন আয়োজিত কেরাত, নাত ও ইসলামিক জ্ঞান প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। অনুষ্ঠানের প্রধান পৃষ্ঠপোষক পিএইচপি। সহযোগী ছিল এইচএম স্টিল।

একুশে পদকপ্রাপ্ত এ গুণীজন আরও বলেন, এই মুহূর্তে তোমার যে কাজটা করা উচিৎ- তা করা এবং কোন কাজ না করা উচিৎ- তার না করার নামই উইজডম। যদি মনে করেন এই কাজটা কি করবো নাকি করবো না, এটি ঠিক নাকি বেঠিক- যতক্ষণ পর্যন্ত এই ঠিক-বেঠিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে না পারেন, ততক্ষণ পর্যন্ত যদি তুমি অপেক্ষা করেন- সেটা উইজডম। আজ মাদ্রাসা ও স্কুল শিক্ষার্থীদের নিয়ে ইসলামিক জ্ঞানের এই প্রতিযোগিতা জ্ঞানার্জন ও ইসলামের বিভিন্ন দিক নিয়ে গবেষণা করার জন্য তাদের মাঝে আগ্রহ জাগবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম বলেন, সমাজকর্মীরা আজ সমাজকর্ম যথাযথভাবে করছে না। এখন সবাই নগদটা চিন্তা করছে; দিয়ে যাওয়ার জন্য চিন্তা করছে না। আজ গাজা হামলার বিরুদ্ধে মুসলিমরা এক হতে পারছে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গাজার এই বর্বরতাকে প্রতিবাদ করেছেন। সেখানে যদি সকল রাজনৈতিক দল, বিশ্বনেতা ও বিশ্বের মুসলিম দেশগুলো প্রতিবাদ করতো তাহলে এরকম নারকীয় হত্যাকাণ্ড চালাতে পারতো না।

তিনি বলেন, পিএইচপি ফ্যামিলি প্রত্যেকটি কর্মকাণ্ড আমরা অভিভূত হই, মুগ্ধ হই। পিএইচপির এই ইসলামিক জ্ঞান প্রতিযোগিতাটি অনন্য, ব্যতিক্রম, বুদ্ধিভিত্তিক।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ডায়মন্ড সিমেন্টের পরিচালক হাকিম আলী, পিএইচপি ফ্যামিলির পরিচালক মোহাম্মদ আমীর হোসেন সোহেল।

স্কুল ও মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘পিএইচপি ইসলামিক ট্যালেন্ট’ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। গত ১৮ মার্চ এ প্রতিযোগিতার অডিশন রাউন্ড এবং গতকাল নগরীর শিল্পকলা একাডেমিতে প্রতিযোগিতার ফাইনাল রাউন্ড অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিচরক ছিলেন ছোবহানিয়া আলীয়া কামিল মাদ্রাসার শায়খুল হাদিস মাওলানা কাজী মুহাম্মদ মুঈনুদ্দিন আশরাফী, জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের খতিব মাওলানা সৈয়দ আবু তালিব মুহাম্মদ আলা উদ্দিন।

প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেন মোহাম্মদ রিদয়ানুর রহমান নয়ন, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন মুজাহিদুল ইসলাম এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেন মো. শাকিল আহমদ। প্রথম পুরস্কার হিসেব ৫০ হাজার টাকার প্রাইজ বন্ড ও সনদ, দ্বিতীয় পুরস্কার ৩০ হাজার টাকার প্রাইজ বন্ড ও সনদ এবং তৃতীয় পুরস্কার ২০ হাজার টাকার প্রাইজ বন্ড ও সনদ দেয়া হয়।

এছাড়া ৪র্থ ইকরামুল হাসান ওমায়ের, ৫ম উম্মে জামিলা তাওসিফা, ৬ষ্ঠ মুহাম্মদ নুর উদ্দিন ফয়সাল, ৭ম শাহরিয়ার রহমান নিহাল, ৮ম হাবিবুল ইসলাম, ৯ম সাবরিনা মুনতাসিন আলিফা, ১০ম মোহাম্মদ কাউসাইন এবং ১১তম স্থান অধিকার করেন আবু হুরায়রা মো. হামিম রজভী।

আরও পড়ুন