২৫ এপ্রিল ২০২৪

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের সিদ্ধান্ত

বহুল আলোচিত-সমালোচিত ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮’ বাতিলের নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে এ আইনটির পরিবর্তে নতুন করে ‘সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্ট’ বা ‘সাইবার নিরাপত্তা আইন’ প্রণয়ণ হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় মন্ত্রীসভার বৈঠকে।

সোমবার (৭ আগস্ট) মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পরিবর্তন করে নতুন যে সাইবার নিরাপত্তা আইন করা হচ্ছে, সেখানে মানহানির মামলায় কারাদণ্ডের বিধান থাকবে না। তবে থাকছে সর্বোচ্চ ২৫ লাখ টাকার জরিমানা। এছাড়া অনাদায়ে তিন বা ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হবে। এ সাজা শুধু জরিমানা না দিতে পারলেই ভোগ করতে হবে। এমনটি জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

প্রসঙ্গত, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, মুক্তচিন্তা ও মত প্রকাশের অধিকার সমুন্নত রাখা, সর্বোপরি মানুষের মৌলিক অধিকারের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের জন্য দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছিলেন দেশের সাংবাদিক ও সচেতন নাগরিকরা। কারণ এ আইনের অপব্যবহার করে মানুষকে হয়রানি করার সুয়োগ আছে। আইনটি নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলেও ব্যাপক সমালোচনা হয়েছে।

আরও পড়ুন