২৬ মে ২০২৪

দক্ষিণ চট্টগ্রামের রুটগুলোতে বাড়তি ভাড়া: ম্যাজিস্ট্রেটের অভিযান, জরিমানা

বাংলাধারা প্রতিবেদন »

বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগে দক্ষিণ চট্টগ্রামগামী বাসগুলোতে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। মিডিয়ার প্রতিবেদন ও দক্ষিণ চট্টগ্রামের রুটগুলোর যাত্রীদের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযানটি পরিচালিত হয়। “দক্ষিণ চট্রগ্রামে গণপরিবহনে নৈরাজ্য, বৃহস্পতিবারে ভাড়া দ্বিগুণ” শিরোনামে বাংলাধারায় গত ২৯ মে একটি প্রতিবেদন ছাপনো হয়েছিল।

মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুরে নতুন ব্রিজ ও মইজ্জারটেক এলাকায় পরিচালিত এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন বিআরটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক।

অভিযানে দেখা যায়, ঈদের এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও ঈদ বকশিশের নামে এখনো বিভিন্ন রুটের বাসগুলো যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে। পটিয়া-সাতকানিয়া-লোহাগাড়া রুটের বাসগুলো আমিরাবাদ থেকে নতুন ব্রিজের ভাড়া নিচ্ছে ১৫০ টাকা করে যেখানে বর্ণিত দূরত্বের নির্ধারিত ভাড়া ১০০ থেকে ১২০ টাকা। অপর একটি বাস পটিয়া থেকে নতুন ব্রিজের ভাড়া আদায় করছে ৫০ টাকা করে, অথচ পটিয়া থেকে নতুন ব্রিজের নিয়মিত ভাড়া হলো ২০ টাকা।

একইভাবে বাঁশখালী রুটের বাসগুলোও এখনো বাড়তি ভাড়া আদায় করছে। বাঁশখালী রুটের কয়েকটি বাসের যাত্রীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বাঁশখালী সদর থেকে নতুন ব্রিজের ভাড়া ৬৫ টাকা হলেও কোন কোন ১২০ টাকা পর্যন্ত নিয়ে ফেলছে। আবার কোন কোনটা সিট ক্যাপাসিটির কথা বলে অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে বাসভর্তি দাঁড়িয়ে যাত্রী নিচ্ছে। এর প্রতিবাদ করতে গেলে তারা যাত্রীদের সাথে অশালীন আচরণ করে।

বিআরটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক জানান, বাড়তি ভাড়া আদায় ও যাত্রী হয়রানির অপরাধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে পটিয়া-সাতকানিয়া-লোহাগাড়া ও বাঁশখালী রুটের ৫টি বাসকে মোট ৭৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অপর দুটি বাস ও ম্যাক্সিমার যাত্রীদের কাছ থেকে নেয়া বাড়তি ভাড়া তাৎক্ষণিক যাত্রীদের ফিরিয়ে দিতে বাধ্য করা হয়।

তিনি আরও বলেন, যাত্রী হয়রানির অপরাধে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটের শ্যামলী পরিবহনের ঢাকামেট্রো ব ১১-১৪৮১ নম্বরের বাসটির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। বাসের মালিককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। যাত্রীকে মারধরের অভিযোগে অভিযুক্ত শ্যামলী পরিবহনের সুপারভাইজারের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মালিকপক্ষকে এক সপ্তাহ সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে এ ধরনের যাত্রী হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেলে আরও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে হুশিয়ার করে দেন বিআরটিএ’র এ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর/টিএম/বি

আরও পড়ুন