১৬ জুলাই ২০২৪

নগরীতে স্বর্ণের দোকান থেকে মালিকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার

বাংলাধারা প্রতিবেদন »

নগরীর বন্দরটিলা এলাকার একটি স্বর্ণের দোকানের ভেতর থেকে ওই দোকানের মালিকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পূর্ব শত্রুতার জেরে পরিচিত কারো হাতে তিনি খুন হয়ে থাকতে পারেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

রোববার (২৩ জুন) দুপুরে নগরীর ইপিজেড থানাধীন বন্দরটিলা এলাকার মনিশ্রী জুয়েলার্স থেকে এর মালিক সঞ্জয় ধরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত সঞ্জয় ধরের (৪৬) বাড়ি কক্সবাজারের রামু উপজেলায়।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (বন্দর) আরেফীন জুয়েল বাংলাধারাকে জানান, দোকানের ভেতরেই থাকতেন সঞ্জয় ধর। স্থানীয় এক নারীর কাছ থেকে বাসায় রান্না করা ভাত কিনে খেতেন প্রতিদিন ।

শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় দোকান বন্ধ ছিল। রোববার দুপুরে ওই নারী সঞ্জয়কে দুপুরের খাবার দিতে গিয়ে দোকানের ভেতরে তার গলাকাট মরদেহ দেখতে পান। পরে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ গলা কাটা ও পেটের দুই পাশে ছুরিকাঘাত অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করে।

আরেফীন জুয়েল বলেন, আমাদের ধারণা তাকে শুক্রবার রাতে খুন করা হয়েছে কারণ মরদেহটিতে পচন ধরে দোকানের আশপাশে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছে।

তিনি বলেন, মরদেহের পাশেই সিন্দুকের চাবি পড়ে ছিল। তবে সিন্দুক থেকে স্বর্ণলঙ্কার, টাকা, এমনকি মোবাইলও নিয়ে যায়নি খুনিরা। শুধু দোকানের ভেতরে থাকা সিসি ক্যামেরার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে নিয়ে গেছে। এতে বোঝা যাচ্ছে- পরিকল্পিতভাবে গলা কেটে ও ছুরিকাঘাত করে মৃত্যু নিশ্চিত করে হত্যাকারীরা দোকান ত্যাগ করেছে। হত্যাটাই তাদের উদ্দেশ্য ছিল, লুটপাট নয়।

তিনি আরো বলেন, সঞ্জয় ধর দাদন ব্যাবসা করতো। টাকা-পয়শার লেনদেন থেকে শত্রুতায় পূর্ব পরিচিত কারো হাতে সে খুন হয়ে থাকতে পারে বলে আমরা প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছি। তদন্তে আসল ঘটনা বেরিয়ে আসবে।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর

আরও পড়ুন