২০ জুন ২০২৪

পটিয়ায় দোকান নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘর্ষ, আহত ৭

পটিয়া প্রতিনিধি »

পটিয়া পৌর সদরে হাজী দেলাল মিয়া শপিং কমপ্লেক্সের ঈদ কেনাকাটার সময় সংঘর্ষে নারীসহ ৭জন আহত হওয়া অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আহতরা হলেন গোবিন্দারখীল এলাকার রবিউল হাসান অভি (১৭), নজরুল ইসলাম (২২), শওকত আলী (৪৪), খরনা ইউনিয়নের মো. হানিফ (৫০), হাসিনা বেগম (৪৫), গোবিন্দারখীল এলাকার ফজলুল হক (২১), জোসেফ (৩৫)। আহতরা পটিয়া হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত মো. হানিফকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ সময় শাহ আমির ক্রোকারিজের বেশ কিছু মালামাল ভাংচুর ও লুটপাট করারও অভিযোগ ওঠেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কিছুদিন ধরে পটিয়া পৌর সদরের স্টেশন রোড এলাকার হাজী দেলাল মিয়া শপিং কমপ্লেক্সের দোকান নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধের জেরে দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা ও মারামারি হয়। ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় ঈদ মার্কেটে কেনাকাটা করতে আসা ক্রেতারা এক পর্যায়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পটিয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে গেলেও কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

শাহ আমির ক্রোকারিজের মালিক আহত নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, অতর্কিতভাবে তাদের দোকান ভাংচুর করা হয় এবং নগদ অর্থ ও মালামাল লুট করা হয়েছে। তাছাড়া তাদের দোকানের কর্মচারীদের প্রতিপক্ষ কিল, ঘুষি মেরে আহত করেছে।

ঈদ মার্কেটের শুরুতে হামলার ঘটনায় ক্রেতারা নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। এইজন্য ব্যবসায়ীরা পুলিশের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

পটিয়া থানার এসআই নাদিম মাহমুদ বাংলাধারাকে জানান, ঈদ মার্কেটে হামলা, ভাংচুর ও মালামাল লুট করার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছেন। প্রকৃত ঘটনা খতিয়ে দেখে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর

আরও পড়ুন