২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পটিয়ায় ‘বেসরকারি ট্রাস্টে’র সৌজন্যে সরকারি স্কুলের সাইন বোর্ড নিয়ে উত্তেজনা

পটিয়া প্রতিনিধি »

পটিয়া পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডের বাহুলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জালাল-মাবিয়া ট্রাস্টের নামে সৌজন্য সাইনবোর্ড লাগানো নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ ব্যাপারে সাইনবোর্ডে জালাল-মাবিয়া নাম অপসারণ করার প্রতিকার প্রার্থনা করে স্থানীয় যুবক শহিদুল ইসলাম শহীদ, লুৎফুল কবির, লোকমান, জসিম, নুরুল ইসলাম, সালাম, আবছার, ইয়ার মোহাম্মদ, ওয়াহিদুল আলম বাদী হয়ে পটিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরের গতকাল লিখিত অভিযোগ দাযয়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জালাল মাবিয়া ট্রাস্টের মালিক কামাল উদ্দীন বেলাল বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান হইতে উক্ত ট্রাস্টের অধীনে পরিচালিত হয় দেখিয়ে গরীব, দুখী মানুষের সেবার করা নামে দেশ বিদেশের দাতা গোষ্ঠীর কাছ থেকে মোটা অংকের অনুদান সংগ্রহ করে। মূলক বাহুলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাইনবোর্ড জালাল মাবিয়া ট্রাস্টের সৌজন্যে লাগানো নিয়ে এলাকার লোকজনের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে।

পটিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোতাহের বিল্লাহ জানান, অভিযোগ পেয়েছি, বাহুলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাইনবোর্ডে জালাল মাবিয়া নামে সৌজন্য মূলক নাম মুছে ফেলার জন্য স্কুল কমিটির সভাপতি ও স্কুলের প্রধান শিক্ষককে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

স্কুল কমিটির সভাপতি কামাল উদ্দীন বেলাল জানান, বাহুলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গত ৭/৮ বছরে আমার ব্যাক্তিগত অনেক অনুদান রয়েছে। সে কারনে স্কুলের সৌজন্য মূলক সাইনবোর্ডে আমার পিতা মাতার নাম রয়েছে এ নিয়ে এলাকার ক্ষতিপয় যুবক বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসী পটিয়ার এমপি হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরীর বাহুলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাইনবোর্ডে জালাল-মাবিয়া নাম দৃষ্টি আকর্ষণ পূবর্ক মুছে ফেলার হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর

আরও পড়ুন