২০ জুন ২০২৪

পুলিশের সব ইউনিটকে সতর্ক থাকার নির্দেশ

বাংলাধারা ডেস্ক »

ঢাকা মালিবাগে পুলিশের গাড়িতে হামলার ঘটনায় রাজধানীর সব ইউনিটকে প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ সদর দফতর। সোমবার পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. সোহেল রানা গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান। এসময় পুলিশের যে কোনো স্থাপনায় প্রবেশের সময় সব আগন্তুককে বিধি অনুযায়ী সতর্কতার সঙ্গে তল্লাশি, ব্লক রেড, চেক পোস্টে তল্লাশি অভিযান পরিচালনা করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, মালিবাগে পুলিশের গাড়িতে হামলার বিষয়ে পুলিশ সদর দফতর দৃষ্টি রাখছে। সংশ্লিষ্ট ইউনিটকে করনীয় বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশ পুলিশের সকল ইউনিটকে প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। সোহেল রানা বলেন, হামলার বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। আইএসের দায় স্বীকারের বিষয়টি দৃষ্টিতে এসেছে। তবে এখন পর্যন্ত ঘটনার সাথে আইএসের কোনো সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে কোনো আপডেট থাকলে তা পরবর্তীতে জানানো হবে।

উল্লেখ্য, রোববার রাত ৯টার দিকে মালিবাগ মোড়ে পুলিশের পিকআপভ্যানে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ট্রাফিক পুলিশের এএসআই রাশেদা আক্তার বাবলি, রিকশাচালক লাল মিয়াসহ তিনজন আহন হন। রাশেদার বাঁ পায়ে ও লাল মিয়ার মাথায় জখম হয়েছে। রাশেদাকে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স হাসপাতাল এবং লাল মিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লাল মিয়ার মাথার আঘাত গুরুতর। রোববার রাতে তার মাথায় অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। সোমবার ডিএমপি কমিশনার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন লাল মিয়াকে দেখতে যান।

এ সময় কমিশনার সাংবাদিকদের বলেন, পুলিশকে টার্গেট করা হয়েছে, নাকি অন্য কোনো উদ্দেশ্যে এ বিস্ম্ফোরণ ঘটানো হয়েছে, তা প্রশ্নসাপেক্ষ। প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে, ককটেলটি গাড়িতে রেখে দেওয়া হয়েছিল। তিনি বলেন, ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করে নৈরাজ্য সৃষ্টির অপচেষ্টায় এই বিস্ম্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। এর আগে গুলিস্তানে ট্রাফিক বক্সে বিস্ম্ফোরণের ঘটনায় তিন পুলিশ কনস্টেবল আহত হন। পুলিশ বক্স বা গাড়িতে হামলা করে পুলিশের মনোবল দুর্বল করে দেওয়ার অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। তবে এ ধরনের কাজ করে পুলিশের মনোবল ভেঙে ফেলা যায় না।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর/এসবি

আরও পড়ুন