১৪ জুন ২০২৪

নিরাপত্তার স্বার্থে ১৩০টি পোশাক কারখানা বন্ধ

পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরির প্রজ্ঞাপন জারি

পোশক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি সাড়ে ১২ হাজার টাকা নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। রোববার (১২ নভেম্বর) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনটি জারি করা হয়। তবে প্রজ্ঞাপনে ১১ নভেম্বর তারিখ উল্লেখ থাকলেও এটি রোববার প্রকাশিত হয়েছে।

প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনে শ্রমিকদের জন্য পাঁচটি গ্রেডে মজুরি ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে গ্রেড-৫ এ ন্যূনতম মজুরি ১২ হাজার ৫০০ টাকা। এতে মূল মজুরি (মূল বেতন) দেখানো হয়েছে ৬ হাজার ৭০০ টাকা। এখানে বাড়ি ভাড়া ৩ হাজার ৩৩৫০ টাকা, চিকিৎসাভাতা ৭৫০ টাকা, যাতাযাত ভাতা ৪৫০ টাকা এবং খাদ্য ভাতা ১২৫০ টাকা। তবে গ্রেড-৫ থেকে গ্রেড-১ পর্যন্ত মূল বেতন বাদে বাড়ি ভাড়া, চিকিৎসা ভাতা, যাতায়াত ভাতা ও খাদ্য ভাতা একই রাখা হয়েছে।

এদিকে, গ্রেড-৪ এ আগের থেকে মাত্র ৩৫০ টাকা বাড়িয়ে মূল বেতন ৭ হাজার ৫০ টাকা নির্ধারণ করে সব মিলিয়ে ১৩ হাজার ২৫ টাকা করা হয়েছে। আর গ্রেড-৩ এ মূল বেতন ধরা হয়েছে ৭ হাজার ৪০০ টাকা। সব ভাতাসহ মোট বেতন ১৩ হাজার ৫৫০ টাকা। আর গ্রেড-২ এ মূল বেতন ধরা হয়েছে ৭ হাজার ৮০০ টাকা। এই গ্রেডে বাড়ি ভাড়া, চিকিৎসা, যাতায়াত ভাতা ও খাদ্য ভাতাসহ মোট বেতন সর্বসাকুল্যে ধরা হয়েছে ১৪ হাজার ১৫০ টাকা।

অন্যদিকে, সর্বোচ্চ গ্রেড-১ এর মূল বেতন ধরা হয়েছে ৮ হাজার ২০০ টাকা। সব ভাতাসহ সর্বসাকুল্যে বেতন হবে ১৪ হাজার ৭৫০ টাকা।

এর আগে, গত ৭ নভেম্বর এক সংবাদ সম্মেলনে শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান পোশাক শ্রমিকদের এই নতুন মজুরিকাঠামো ঘোষণা করেন। ওই দিনের পর থেকে শ্রমিকদের একটি বড় অংশ এই বেতন কাঠামোর বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামে। যে আন্দোলনে বেশ কয়েকজন শ্রমিক হতাহতের খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া প্রায় অর্ধশতাধিক কারখানায় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। আর শ্রমিকদের চলমান আন্দোলনের মধ্যে নিরাপত্তার স্বার্থে এখন পর্যন্ত দেশের ১৩০টি পোশাক কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্যে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন