১৬ জুলাই ২০২৪

মিরসরাইয়ে জমিসক্রান্ত বিরোধে ইউপি সদস্যের প্রহারে আহত বৃদ্ধ-দম্পতি

মিরসরাই প্রতিনিধি »

মিরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ থানার ইছাখালী ইউনিয়নে জায়গা-জমি সক্রান্ত বিরোধে বৃদ্ধ দম্পতিকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, ইছাখালী ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার নিতাই চরণ দাশ ও তার পরিবারের লোকজন মিলে একই এলাকার ছায়ারঞ্জন দাশ (৭০) ও তার ভাইয়ের জায়গা জোরপূর্বক দখল করতে আসে। এসময় ছায়ারঞ্জন দাশ বাঁধা দিতে গেলে তার উপর তেড়ে এসে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাৎ করে ইউপি সদস্য নিতাই চরণ দাশ ও বহিরাগতরা। এসময় পরিবারের অন্য সদস্যরা তাকে বাচাঁতে এলে তাদেরও মারাত্মক জখম করে।

বৃহস্পতিবার (২মে) বিকেলে ওই ইউপি সদস্যের বাড়ীর রাস্তা প্রশস্ত করার জন্য ছায়ারঞ্জন দাশের জায়গায় স্কেবেটর দিয়ে মাটি কাটতে গেলে এঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইছাখালী ইউনিয়নের চরশরত এলাকার ইউপি সদস্য নিতাই চরণ দাশ বহিরাগত সন্ত্রাসী নিয়ে ছায়ারঞ্জন দাশ এর জায়গা দখল করতে যায় মাটি কাটার স্কেবেটর নিয়ে যায়। এসময় ছায়ারঞ্জন দাশ ও তার ভাই ডালিম কুমার দাশ বাধা দিলে উভয়পক্ষ হাতাহাতিতে লিপ্ত হয়। একপর্যায়ে নিতাই চরণ দাশ ছায়ারঞ্জন দাশের মাথায় আঘাৎ করে। এসময় ডালিম কুমার দাশ তার ভাইকে বাচাঁনোর চেষ্টা করলে তাকেও পিটিয়ে আহত করে।

জানা গেছে এর আগে নিজের জায়গা রক্ষার্থে উচ্চ আদালতে মামলা করেন ডালিম কুমার দাশ। এখনও মামলার তদন্ত চলছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য নিতাই বাংলাধারাকে বলেন, চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে রাখায় স্থানীয়দে সাথে ওই মহিলার ঝগড়া হচ্ছিল। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে দুই পক্ষকে থামিয়ে দিয়েছি। ওই মহিলাকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেয়ার সময় কে বা কারা আমার ছবি তুলে। পরে সেগুলো ফেসবুকে দিয়েছে। ছবিতে আমাকে যেভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে, বাস্তবে ওই সময় এমন ঘটনা ঘটেনি। আমি থানা পুলিশকে বলেছি, একটা শালিশের ব্যবস্থা করে উভয় পক্ষের মধ্যে চলমান এই ঝামেলা মিমাংসা করে দিতে।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর

আরও পড়ুন