১৩ জুলাই ২০২৪

রাউজানে ভুয়া চিকিৎসক ধরা, লাখ টাকা অর্থদণ্ড

চট্টগ্রামের রাউজানে পুলক কান্তি দে নামক এক ভুয়া চক্ষু চিকিৎসককে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অংগ্যজাই মারমার নেতৃত্ব পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত উপজেলার জলিল নগরের আবচার মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় ভিশন সেন্টার নামক চক্ষু চিকিৎসালয়ে অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় চিকিৎসা প্রদানকালে তাকে হাতেনাতে আটক করে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন।

অভিযানে সহযোগিতা করেন রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সুমন ধরসহ রাউজান থানা পুলিশ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অংগ্যজাই মারমা বলেন, গত ৭ জুলাই উপজেলা মাসিক সভায় একজন সদস্য এই কথিত চক্ষু চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ উপস্থাপন করেন। এই প্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনায় তদন্ত করে দেখা যায়, ভিশন সেন্টার নামক চিকিৎসালয়ে চিকিৎসায় নিয়োজিত পুলক কান্তি দে নামক ব্যক্তির চিকিৎসা প্রদান করার মত কোন সনদ নেই। তিনি নগরীর একটি হাসপাতালের একজন ল্যাব টেকনিশিয়ান। তার বাড়ি চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলায়। তিনি একজন টেকনিশিয়ান হলেও কোন প্রকার চিকিৎসকের সনদ ছাড়া দীর্ঘদিন ধরে জলিল নগরে চক্ষু চিকিৎসা দিয়ে আসছেন। তার বিরুদ্ধে উপস্থাপিত অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হওয়ায় তাকে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। এবং আর কখনও চিকিৎসা প্রদান করবে না বলে তিনি মুচলেকা দেন।

আরও পড়ুন