১৭ জুন ২০২৪

লোহাগাড়া ও বাঁশখালী উপজেলা নির্বাচনে জয়ী যারা

চতুর্থ ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চট্টগ্রামের দুই উপজেলা বাঁশখালী ও লোহাগাড়ায় ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এতে লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম চৌধুরী এবং বাঁশখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিত হয়েছেন খোরশেদ আলম।

লোহাগাড়া
লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম চৌধুরী। ১ হাজার ১০৬ ভোটের ব্যবধানে তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীকে হারিয়েছেন তিনি।

খোরশেদ আলম চৌধুরী পেয়েছেন ৩০ হাজার ৮৯৯ ভোট, আর ২৯ হাজার ৭৯৩ ভোট সিরাজুল ইসলামের। অন্যদিকে প্রবাসী সৈয়দ আবদুল মাবুদ পেয়েছেন মাত্র ২ হাজার ৯১৪ ভোট।

বুধবার (৫ জুন) রাত ৯টার দিকে বেসরকারিভাবে এই ফলাফল ঘোষণা করেন নির্বাচনের সহাকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইনামুল হাসান।

নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক মো. সরওয়ার মামুন ৪৩ হাজার ১২০ ভোট পেয়ে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সদস্য জমিল উদ্দিন জামিল পেয়েছেন ১১ হাজার ৮৫৬ ভোট। ৭ হাজার ১৬৩ ভোটে তৃতীয় হয়েছেন ফরহাদুল ইসলাম।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জেছমিন আকতার ৩৬ হাজার ৯ ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শাহীন আক্তার পেয়েছেন ২৫ হাজার ৪৪১ ভোট।

বাঁশখালী
বাঁশখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৬১ হাজার ৫১১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন খোরশেদ আলম। বুধবার (৫ জুন) ভোট গননা শেষে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে এ ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী খোরশেদ আলম পেয়েছেন ৬১ হাজার ৫১১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকের প্রার্থী মো. এমরানুল হক পেয়েছেন ২১ হাজার ৯৭৯ ভোট।

এছাড়া, অন্য দুই প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের জাহিদুল হক চৌধুরী ৩৭৬ ভোট এবং ঘোড়া প্রতীকের শেখ ফখরু উদ্দিন চৌধুরী পেয়েছেন ১ হাজার ২৬৯ ভোট।

বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জেসমিন আক্তার বলেন, নির্বাচনে মোট ৩ লাখ ৭৬ হাজার ৯০৬ জন ভোটারের বিপরীতে ভোট পড়েছে ৮৭ হাজার ১৮২টি। যা মোট ভোটারের ২৩ দশমিক ১৩ শতাংশ। এ উপজেলায় ভোট বাতিল হয়েছে ২ হাজার ৪৭ ভোট।

আরও পড়ুন