২০ মে ২০২৪

সময়ের সমকাল

মোয়াজ্জেম হোসেন কাওসার »

মনটা খচখচ করছে, আমাদের দেশের লক্ষ লক্ষ মানুষ আজ বানভাসি। হঠাৎ রেকর্ড পরিমান পানি বৃদ্ধির কারণে সার্বিকভাবে জনজীবন বিপর্যস্ত।মানুষের কষ্ট লাঘবে কাজ করে যাওয়া সরকারের সকল প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক সংগঠন, বিভিন্ন সামাজিক মানবিক সংগঠন ও ব‍্যক্তিক প্রচেষ্টা গুলোকে মনের গভীর থেকে অভিবাদন। বিশেষ অভিবাদন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও এর সকল অঙ্গ, সহযোগী ও ভাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাকর্মীদের। যারা আর্তমানবতার সেবায় দুর্গত মানুষের কাছে দুয়ারে দুয়ারে সহমর্মিতাসহ উপস্থিত আছেন।

বাংলাদেশের দুর্যোগ ব‍্যবস্থাপনা সক্ষমতা ও অভিজ্ঞতা, বিগত সকল সময়ের তুলনায় অনেক সমন্বিত। সেই আত্মবিশ্বাস ও বাস্তবতা থেকেই আশা রাখি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশবাসী সার্বিক অংশগ্রহণের মাধ্যমে এই দুর্যোগ মোকাবেলা করবে ইনশাআল্লাহ।আমাদের সার্বিক সক্ষমতা আবারও দেখবে বিশ্ববাসী।সামনের সময়গুলোতে সঠিক সমন্বয় সার্বিক ব‍্যবস্থাপনা ফলপ্রসূতার উপর বেশি প্রভাব রাখবে। তাই সরকারকে এই দিকে বিশেষ নজরদারীর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। কারণ, এবারের পরিস্থিতির ভিন্নতা আছে।

বর্ষা মাত্র শুরু হয়েছে, পানি নেমে গেলেও দূর্গত মানুষকে বর্ষাও মোকাবেলা করতে হবে হয়তো।মানুষগুলোর কষ্টের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়ে স্রষ্টার কাছে আকুল আকুতি ‘দুর্গত মানুষগুলোর কষ্ট লাঘব করে দাও’। বিগত করোনাকাল, সীতাকুণ্ডের দুর্ঘটনা ও এবারের বন‍্যায় যে মানবিক প্রতিক্রিয়া দেশবাসী দেখিয়েছে সবাইকে অভিবাদন।

গতকাল ২৩ জুন, উপমহাদেশের সুপ্রাচীন রাজনৈতিক দল ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ’র ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ।প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সকল স্তরের নেতাকর্মীদের অভিনন্দন জানাই।সামনের দিনগুলোতে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার মিছিলে, সবাই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দেশবাসীকে সাথে নিয়ে, শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করে তুলবে। এই হোক আমাদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর প্রত‍্যয়। অভিনন্দন নেত্রীকে। বিগত ৪১ বছর ধরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সভাপতির দায়িত্বে থেকে গণমানুষের সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর নেতৃত্বে দেশের মানুষের জন‍্য অবিরাম ক্লান্তিহীন কাজ করার জন‍্য।আপা, অভিনন্দন, শুভকামনা ও সুস্বাস্থ্য কামনা করছি আপনার।

আগামীকাল ২৫ জুন পদ্মা সেতুর শুভ উদ্ভোধন করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।পদ্মা সেতু নিয়ে হাজার ষড়যন্ত্র ও অনৈতিক অপপ্রচার এরপরও সেতু হয়ে এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায় বঙ্গবন্ধু কন‍্যার দৃঢ়চেতা মনোভাব ও সংকল্পের কারণে। পদ্মা সেতু এখন বাংলাদেশ নামের রাষ্ট্রের সক্ষমতার প্রতীক। পদ্মা সেতু প্রকল্পটির বহুমাত্রিক গঠন শৈলী, দেশের একটি অঞ্চলের মানুষের জীবন মানের উন্নয়ন ও দেশের অর্থনীতির উপর প্রভাব, এসব বুজতে পেরেই আওয়ামী বিরোধীরা বেসামাল। আসলেই জ্বালা, অন্তর জ্বালা আওয়ামী বিরোধীদের।আওয়ামীলীগ সরকারের করা প্রভূত উন্নয়নে তারা দিশেহারা এবং তারা রাত বিরাতে নোংরা ষড়যন্ত্রের জাল বুনে যাচ্ছে।

আওয়ামী বিরোধীরা সার্বিকভাবে অপপ্রচার এর অপপ্রয়াস চালিয়ে আসছে, চালিয়ে যাবে। কারণ, বর্তমানে আওয়ামী বিরোধী রাজনীতির মূল হাতিয়ার হল অপপ্রচার ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা। এর মাধ্যমে রাষ্ট্রের সামাজিক ও রাজনৈতিক মূল্যবোধ গুলোকে আরো তলানির দিক নিয়ে যাচ্ছে। দেশ জাতির স্বার্থেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সকলস্তরের নেতাকর্মীদের প্রয়োজনে কঠোরভাবে এদেরকে প্রতিহত করতে হবে। ষড়যন্ত্র কারীদের বুঝতে হবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক সেনারা আর্তের জন‍্য হাত বাড়াতে পারে আবার প্রয়োজনে আঘাত করতে পারে ষড়যন্ত্র কারীর বাড়ানো হাতেই। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু ও জাতীর সকল শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি রইল সালাম। আমার বাংলাদেশ ভালো থাকুক।
জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

লেখক : সদস্য, তথ‍্য ও গবেষণা উপকমিটি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ।

আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও

সর্বশেষ