spot_imgspot_img
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার নিবন্ধিত। রেজি নং-৯২
মঙ্গলবার, ৩ অক্টোবর ২০২৩
প্রচ্ছদঅন্যান্যউন্নয়ন ও শান্তির ঝরনাধারায় সজীব হোক দেশ

উন্নয়ন ও শান্তির ঝরনাধারায় সজীব হোক দেশ

spot_img

সম্পাদকীয় »

করোনা মহামারির বিষাদ সময় অতিক্রান্ত করে জাতি নব উদ্দীপনা ও শান্তির অন্বেষায় নববর্ষ ১৪২৯ বরণ করবে। বিগত বছরটির বেশি সময় অতিবাহিত হয়েছে করোনা প্রতিরোধে দেশের প্রায় ৭৫ ভাগ মানুষ টিকার আওতায় আসায় অর্থনীতি ও সমাজ জীবনে উদ্যম ও গতির সঞ্চার হয়েছে। করোনার মধ্যেও দেশের কৃষি ও শিল্প উৎপাদন অব্যাহত থেকেছে, এটি আমাদের দেশের মানুষের উঠে দাঁড়াবার সাহস ও ত্যাগের ফলেই সম্ভব হয়েছে। মেগা প্রকল্পগুলির অবকাঠামো উন্নয়ন দৃশ্যমান হয়েছে যেমন পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, পদ্মা সেতু, কর্ণফুলী টানেল, মেট্রোরেল, দোহাজারী-কক্সবাজার রেলপথ ইত্যাদি। বিগত বছরটিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি বড় মানবিক কর্মযজ্ঞ ছিলো গৃহহীনে গৃহদান, এটি চলমান। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা ফিরে গেছে, তাদের টিকার আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে।

বিগত বছরটি ছিলো স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনের বছর, সেই সাথে জাতির জনকের জন্মশতবর্ষের উৎসব অনুষ্ঠানে জাতি বঙ্গবন্ধু ও শহীদদের আদর্শ বাস্তবায়নে নতুন করে শপথ নিয়েছে। অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের কাজ চলছে, পোশাক রপ্তানি বেড়েছে, প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সও সন্তোষজনক। বিগত বছরটিতে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে মানুষের কষ্ট বেড়েছে। অসাধু ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট ভাঙতে প্রশাসনের প্রচেষ্টা চোখে পড়েছে।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক সংকট সৃষ্টি করেছে, এর প্রতিক্রিয়ায় আমাদের সতত সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংকট মোকাবেলায় রিজার্ভের বর্তমান গতি অব্যাহত রাখা, মূল্যস্ফীতি রোধ ও সকল ক্ষেত্রে উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। দুর্নীতি ও অপচয় হ্রাস এবং সকল ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও পরিমিতি অনুসরণ করলে আর্থ-সামাজিক পরিস্থিতির উন্নতি ঘটবে। সরকারকে আইনের শাসন ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় আরো বেশি তৎপর হতে হবে। মাদক, জঙ্গি, সন্ত্রাসী নানা অপরাধ তৎপরতা কঠোরভাবে দমন করে সমাজজীবনে শান্তি, শৃঙ্খলা ও সুস্থিতি বজায় রাখতে প্রশাসনকে সচেষ্ট হতে হবে।

সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুকে জাতীয় বিপদ ও উদ্বেগের বিষয় হিসেবে নিতে হবে। প্রাণ-প্রকৃতি-পরিবেশের ভারসাম্য নিশ্চিত করতে হবে মানুষের জীবন-জীবিকা ও অর্থনীতির স্বার্থে। নতুন বছরটিতে আমাদের সমাজ-অর্থনীতি সমৃদ্ধির পথে যাত্রা শুরু করুক, জাতি সকল বিপদ, প্রতিবন্ধকতা ঐক্যবদ্ধভাবে সচেতনতার সাথে মোকাবেলা করে এগিয়ে যাবে-নববর্ষে এই হোক আমাদের সম্মিলিত উচ্চারণ। স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বাসস্থান, নিরাপদ ও স্বস্তির জীবন নিশ্চিত করতে সরকারকে সকল প্রচেষ্টা নিতে হবে।

অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক, উদার মানবিক সমাজ ও শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করতে সরকারের দায়িত্বই সমধিক। অর্থনৈতিক সামাজিক বৈষম্য নিরসনে অর্থনৈতিক পরিকল্পনা, বাজেট প্রণয়নে সরকারকে দৃষ্টি দিতে হবে। স্বাস্থ্য, শিক্ষা, সামাজিক নিরাপত্তা খাতে আরো অধিক বরাদ্দের ব্যবস্থা করতে হবে। গ্রামÑশহরের এবং অঞ্চলগত বৈষম্য ঘুচিয়ে সমতাপূর্ণ উন্নয়ন জাতীয় অগ্রগতিকে ত্বরান্বিত করতে পারে।
নববর্ষ সকল মানুষের জীবনে সুখ-শান্তি আর সমৃদ্ধি নিয়ে আসুক, অতীতের সকল গøানি, ব্যর্থতা মুছে ফেলে আমরা আলোকিত ভবিষ্যতের পানে তাকাবো। জীবন জীবিকার সুরক্ষাকে অগ্রাধিকার দিয়ে দেশবাসী সুরক্ষিত থাকুক।

নববর্ষে দেশবাসীকে আমাদের শুভেচ্ছা।

আরও পড়ুন

spot_img

সর্বশেষ