spot_imgspot_img
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার নিবন্ধিত। রেজি নং-৯২
মঙ্গলবার, ৩ অক্টোবর ২০২৩
প্রচ্ছদনির্বাচনভোটে নেই ভোটের আমেজ

ভোটে নেই ভোটের আমেজ

spot_img

পটিয়া প্রতিনিধি »

পটিয়া উপজেলার ছনহরা ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচনে উৎসাহ উদ্দীপনা ছাড়ায় চেয়ারম্যান পদে ৩ স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।

আজ বুধবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ভোট গ্রহণ চললেও ভোট দিতে আসতে দেখা যায়নি তেমন কাউকে। মাঠে ভোটারদের উপস্থিতির চাইতেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংখ্যা ছিল চোখে পড়ার মতো।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, জ্যোতিশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে ভোটারশূন্য। তবে পিজাইটিং অফিসার জানান, দুপুর দুইটা পর্যন্ত ১৭৮১ ভোটারদের মধ্যে ভোট গ্রহণ ৪০০ জনের।

চাটারা নোমানিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে জানা যায়, সকাল থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ১৬৮০ ভোটের মধ্যে ২৩০টি ভোট কাস্ট হয়েছে।

রমেশ ফনিন্দ্র স্মৃতি পাঠাগার কেন্দ্রে মোট ১৫৮৮ ভোটারের মধ্যে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ হয়েছে ৪৬৭।

ছনহরা ১ নং ওয়ার্ডের টিপি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে ২ হাজার ১৪৭ জন ভোটারের মধ্যে সাড়ে ১২ পর্যন্ত যেখানে ৬৮০ ভোট গ্রহণ হয়েছে।

দক্ষিণ বরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১১৬০ ভোটারের মধ্যে দুপুর ১টা ১০ মিনিট পর্যন্ত ভোট গ্রহণ ৩০০ ভোট গ্রহণ করা হয়।

এছাড়াও ছনহরা ইউপির বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করে দেখা যায় ভোটারদের উপস্থিতি কম।

ভোট দিতে আসা মো. জুয়েল জানান, আওয়ামী লীগের নৌকা প্রার্থী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে না পারায় অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হচ্ছে না। যার কারণে ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি সকাল থেকে খুবই কম।

এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর রশিদ দৌলতী ছাড়া অন্য দুই স্বতন্ত্র প্রার্থীর অল্প কিছু পোস্টার ছাড়া আর কোনো ধরনের কার্যক্রম চোখে পড়েনি। এমনকি আজকের নির্বাচনের ৯টি কেন্দ্রে তাদের কোনো এজেন্ট ও দেওয়া হয়নি।

প্রসঙ্গত, শুরু থেকেই এ নির্বাচনকে ঘিরে উত্তাপ থাকলেও ১৩ জুন সুপ্রিম কোর্টের এক আদেশের পর আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মামুনুর রশীদ রাসেলের মনোনয়ন পুনরায় বাতিল হয়। এ কারণে ভোটার ও প্রার্থীরা মনে করছেন শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় ভোটের মাঠে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুন

spot_img

সর্বশেষ